দেশ ও মানুষের কথা বলে

[vc_row][vc_column]

[/vc_column][/vc_row]

পলাতক নেতার নির্দেশে বিএনপির নেতাকর্মীরা লাফাচ্ছে: শামীম ওসমান

নভেম্বর ২৭, ২০২২,

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জ চার আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বিএনপির নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা পলাতক নেতার নির্দেশে লাফাচ্ছেন। লাভ হবে না, কারণ আসন্ন নির্বাচনে আপনাদেরকে কেউ ভোট দিবে না। আপনাদের পলাতক নেতা লন্ডনে বসে দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। যা এদেশের সাধারণ মানুষ কখনও মেনে নিবে না। নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও সদস্যবৃন্দের আনুষ্ঠানিক দায়িত্বভার গ্রহণ ও প্রথম সভা-২০২২ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রোববার (২৭ নভেম্বর) নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সাংসদ শামীম ওসমান আরও বলেন, আগামী কয়েক মাস দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে। যারা কখনো ভোটে নির্বাচিত হয়নি, যারা রাতের অন্ধকারে ক্ষমতার লোভে নিরীহ সাধারণ মানুষকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করেছে, যারা স্বাধীনতার বিরোধী শক্তি জামাত-বিএনপির সাথে ষড়যন্ত্র করে বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ২৬ বার হত্যার চেষ্টা করেছে তাদের দোসর তারেক রহমানের দিক নির্দেশনায় বর্তমানে একশ্রেণীর রাজনীতিবিদরা দেশকে অস্থিতিশীল করার পায়তারা করছে। আমরা আপনাদের এই ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করার জন্য বঙ্গবন্ধুর সৈনিকেরা সদা প্রস্তুত রয়েছি।

শামীম ওসমান বলেন, দেশে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপির নেতাকর্মীরা বর্তমানে বিভিন্ন দেশের কুটনৈতিক ও রাষ্ট্রদূতদের ধারে ধারে ঘুরছেন। এতে কোন লাভ হবে না। কারণ আমার দেশের জনগণের ভালো-মন্দের বিষয় জননেত্রী শেখ হাসিনা খুবই দক্ষতার সাথে দেখাশুনা করছেন। সারা পৃথিবীতে দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধির কারনে আমাদের দেশেও এর প্রভাব পড়েছে। আর তাকে পুঁজি করে কিছু লোভী রাজনীতিবিদ দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির পায়তারায় লিপ্ত রয়েছে। বিএনপির রাজনীতিতে বর্তমানে নেতাকর্মীদের নিয়ে পরটার দোকানের গরম তাওয়ার খেলায় মেতেছেন শীর্ষ নেতারা। গরম তাওয়ায় সাধারন নেতাকর্মীদের ছেড়ে দিয়ে অশুভ খেলায় মেতেছেন বেগম খালেদা জিয়া ও তার কু-পুত্র পলাতক তারেক রহমান। বর্তমানে বিএনপি দুই গ্রুপে বিভক্ত। একটি হলো ভাইয়া গ্রুপ, আর আরেকটি হলো আম্মা গ্রুপ। এদের মধ্যে ভাইয়া গ্রুপ চায় না আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন হোক, তারা চায় ২০২৮ এর নির্বাচনে তারা অংশ গ্রহণ করবেন।

অপরদিকে আম্মা গ্রুপ চায় আসন্ন নির্বাচনে নীল নকশা করে অবৈধভাবে ক্ষমতায় আসতে। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা স্পষ্ট বলেছেন খুনীদের সাথে কোন আলোচনার প্রয়োজন নেই, তারা মনে চাইলে নির্বাচনে আসুক বা না আসুক। তাছাড়া তারা নারায়ণগঞ্জকে নতুন করে টার্গেট করেছে। আমাদের এ বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে।

এ সময় জেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান বাবু চন্দন শীলসহ সাধারণ ওয়ার্ডের সকল সদস্যদের আনুষ্ঠানিক দায়িত্বভার গ্রহণ অনুষ্ঠানে সাবেক চেয়ারম্যান মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেনের নব-নির্বাচিত সদস্যদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দেন এবং ফুলের শুভেচ্ছার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের কর্মসূচি শেষ হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ- ৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি, জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খোকন সাহা, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এম এ রশীদ, সোনারগাঁ উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূইয়া, রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান ভুইয়া, আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাহিদুল ইসলাম হ্যালো সরকার, বক্তাবলি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এম শওকত আলী প্রমূখ।

www.bbcsangbad24.com

Leave A Reply

Your email address will not be published.