ফেব্রুয়ারী,০৬,২০২১

স্টাফ রিপোর্টার: 

মুন্সীগঞ্জ জেলার টংগীবাড়ি উপজেলার ষশলং ইউনিয়নের হাটখান গ্রামের আব্দুর রবের মেয়েকে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক বিবাহ দেন মুন্সীগঞ্জ সদর থানার রামপাল ইউপির সিপাহীপাড়া গ্রামের মোবারকের ছেলে শামিম শেখের নিকট।

মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে বিয়ের সময় নগদ আড়াই লক্ষ টাকা ও আড়াই ভরি স্বর্ন যৌতুক দেন। বাবার দেওয়া এতকিছুর পরেও দাম্পত‌্য জিবন এ সুখী হয়নি কনিকা আক্তার । নেমে ধস,শুরু হয় শারীরিক ও পাশবিক নির্যাতনের পালা। এখানেই থেমে নেই পাষান্ড স্বামী শামিম সে পোগনে কাজী অফিসে গিয়ে কোন কারন ছাড়াই স্ত্রী কনিকাকে ডিভোর্স দেয়।

আর এদিকে অসহায় কনিকা তার অবুঝ ৩ বছরের শিশু রাফসানকে নিয়ে অবশেষে বাবার আশ্রয়ে ঠাঁই নেয় এবং বিচারের বানী নিয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

অসহায় কনিকা প্রতিনিধিকে জানায়, ন‌্যায় বিচারের দাবীতে স্বামীর এলাকার স্থানীয় রামপাল ইউপি চেয়ারম‌্যান বাচ্ছু শেখের কাছে একাধিকবার ধন‌্যা দিয়েও ন‌্যায় বিচার পায়নি কারন পাষান্ড স্বামী শামিম চেয়ারম‌্যানের আত্মীয় হওয়ার সুবাধে ।

এমনকি কনিকাকে বিয়ে করার পূর্বে কয়েকটি বিয়ে করে যৌতুক নিয়ে কয়েকমাস সংসার করার পরে তালাক দিয়ে বিদায় করে দেয় আর এভাবে মোটা অংকের টাকা আত্মসাৎ করে শামিম ।

এটা যেন পেশায় পরিনত হয়েছে লম্পট শামিমের। শামিমের মা তার ছেলেকে এসকল কাজে উৎসাহ যোগিয়েছে বলেও জানায় অসহায় – বিচার বঞ্চিত কনিকা।

এক সন্তানের জননী কনিকা ন‌্যায় বিচারের আশায় অবশেষে মানবাধিকারে স্বরনাপর্ন হয়ে একটি অভিযোগ ও দায়ের করেছেন ।
অভিযোগে উল্লেখ‌্য করেছেন যে শামিম কোন অপরাধ ছাড়াই কেন তাকে গোপনে তালাক দিল, কি অপরাধ ছিল তার সে জানতে চায়। সে চায় তার অবুঝ শিশু রাফসানের বাবার অধিকার ,স্বামীর সংসার ,ভরনপোষন,দাম্পত‌্য জীবন।

সে আরোও উল্লেখ‌্য করেছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারীদের যে সন্মান দিয়েছেন, দিয়েছেন সমান অধিকার । তাহলে সে কেন ন‌্যায় বিচার পাবেনা । সুশীল সমাজ ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে ন‌্যায় বিচারের দাবী করছে কনিকা।

www.bbcsangbad24.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here