ফেব্রুয়ারি ০৯, ২০২১,

রাইসুল ইসলাম লিটন, টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইলের গোপালপুর পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে খলিল (৩৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। নিহত খলিলের বাবা নছিম উদ্দিন বাদী হয়ে সোমবার রাতেই অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করেন। অপর দিকে আ.লীগের নির্বাচনী অফিস ভাঙচুরের অভিযোগে রফিকুল ইসলাম হীরা বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। এ মামলার বিদ্রোহী প্রার্থীর আটজন সমর্থককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, হলেন হুমায়ুন কবির, শেখ ফরিদ, রাজু আহমেদ, আল আমিন, ফরিদ, সাহেব আলী, সেলিম মিয়া ও মঞ্জুর হক।

বিদ্রোহী প্রার্থী খন্দকার গিয়াজ উদ্দিন জানান, সন্ধ্যায় তার বাসা থেকে ওই আটজনকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। পরে তাদের আ.লীগের নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুরের মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

জানা গেছে, সোমবার সন্ধ্যায় গোপালপুর বাজারের কাছে আওয়ামী লীগের একটি নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সঙ্গে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এক পর্যায়ে আ.লীগ প্রার্থীর সমর্থকেরা বিদ্রোহী প্রার্থীর বাসা ঘেরাও ও ভাংচুর করেন। এ খবর বিদ্রোহী প্রার্থীর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে তার সমর্থকেরা মিছিল নিয়ে উপজেলা সদরে আসার সময় তাদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থক খলিল নিহত হন। নিহত খলিলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

গোপালপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমির খসরু জানান, ময়নাতদন্ত শেষে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। টাঙ্গাইলের গোপালপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় একজনের নিহতের ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ নিয়ে আজ মঙ্গলবার গোপালপুরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি গোপালপুর পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে আ.লীগের মনোনীত প্রার্থী পেয়েছেন উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক রকিবুল হক ছানা। বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা আ.লীগের সাবেক সভাপতি খন্দকার গিয়াস উদ্দিন। বিএনপির মনোনীত প্রার্থী খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম রুবেল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শাহজাহান প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

www.bbcsangbad24.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here