মার্চ,১৩,২০২১

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: 

আলু বহনকারী ট্রলি চালানোকে কেন্দ্র করে মুন্সিগঞ্জের চরাঞ্চলে ককটেল হামলায় এক ট্রলি চালকের মাথার খুলি উড়ে গেছে। এতে ট্রলি চালক জালাল বেপারী (৪৮) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে। নিহত জামাল সদর উপজেলার নতুন আমঘাটা গ্রামের গনি বেপারীর ছেলে।

শনিবার (১৩ মার্চ) দুপুরে সদর উপজেলার চরাঞ্চলের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের নতুন আমঘাটা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এঘটনায় অপর এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান,গতকাল শুক্রবার আলু বহনকারী ট্রলি চালানোকে কেন্দ্র করে স্থানীয় সেন্টু মেম্বার বাহিনীর খালেক শেখ,শিপন, স্বপন, দেলু,হারুন,আলমগীরের সাথে নিহত জলিল বেপারীর কথা কাটাকাটি হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, নতুন আমগাটা গ্রামের একই বংশের মানুষ নিহত জামাল বেপারী ও সেন্টু বেপারীরা। এরা পরস্পর আত্মীয়-স্বজন হলেও দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল।

প্রতি বছরই এ মৌসুমে আলু উঠানোর পর সেগুলো ট্রলি গাড়ির মাধ্যমে জমি থেকে কোল্ডস্টোরেজে পৌছানোর কাজ করত জামাল- সেন্টুরা। এনিয়ে জামাল ও সেন্টুদের মধ্যে আবারো বিরোধ শুরু হয়। এ নিয়ে ফের শনিবার দুপুরে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় তাদের মধ্যে হাতাহাতিও হয়। একপর্যায়ে সেন্টু পক্ষের লোকজন জামালের মাথায় ককটেল নিক্ষেপ করে। এতে ঘটনাস্থলেই জামাল মাথার বিভিন্ন অংশ উড়ে যায়। এবং সেখানেই জামাল মারা যায়।

নিহতের চাচাতো ভাই মো মামুন ব্যাপারি বলেন,জামালের সাথে কেউ ছিল না।সেন্টু মেম্বার বাহিনীর খালেক শেখ,শিপন, স্বপন, দেলু,হারুন,আলমগীরা প্রথমে বেদম পেটায় জামালকে। জামালের মাথায় একাধিক ককটেল নিক্ষেপ করে মাথাটাই উড়িয়ে দিল। আমরা জামালের হত্যা কারিদের বিচার চাই।

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)আবু বক্কর সিদ্দিক ঢাকা পোস্টকে জানান, ঘটনাটি জানতে পেরে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপার এখনো কাউকে আটক করা যায়নি।
ঘটনার পর থেকে এর সাথে জড়িতরা পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

www.bbcsangbad24.com