মার্চ,২৫,২০২১

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি: 

মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার উত্তর ইসলামপুর গ্রামে বিচার সালিশীতে দু পক্ষের সংঘর্ষে তিন তরুণের মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় আহত হয় আরও ৫ জন।

বুধবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে শহরের উত্তর ইসলামপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- উত্তর ইসলামপুর এলাকার কাশেম পাঠানের ছেলে মো.ইমন হোসেন(২২) ও একই এলাকার বাচ্চু মিয়ার ছেলে মো: সাকিব হোসেন(১৯)। এ ঘটনায় গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে আওলাদ হোসেন মিন্টু(৪৭) বৃহস্পতিবার বেলা ১২ মৃত্যু হয়। চিকিৎসারত আরো অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
এই ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার ইসলামপুর এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার লক্ষে জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে ডিবি পুলিশসহ কয়েক প্লাটুন পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র থেকে জানা যায়, ইভটিজিং এর একটি ঘটনা নিয়ে রাত ১০ টার দিকে বিচার সালিশ শুরু হয়। তবে তা মিথ্যা প্রমাণিত হলে স্থানীয় কিশোর সৌরভ ও ইমনের সাথে হাতাহাতি শুরু হয়। পরে সৌরভ গ্রুপ ও ইমন গ্রুপ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মারামারিতে জড়িয়ে পরে।এতে ঘটনাস্থলেই ইমন পাঠান নিহত হয় এবং ঢাকা নেওয়ার পথে সাকিব মারা জায়। পরে ২৫ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার সময় ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসারত পিন্টু মারা যায়। এদিকে ওই ঘটনায় বিচারকসহ গুরুতর আহত হয় আরও ৫ জন। যাদের মধ্যে তিনজনকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল পাঠানো হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুবক্কর সিদ্দিক জানান, এ ঘটনায় কয়েকজন আটক আছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে আমরা গ্রেফতার করবো। সে আরো জানায়, ঘটনার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আটককৃতদের তদন্তে স্বার্থে তাদের নাম এখন বলা যাবে না। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের লক্ষে যতেষ্ট পরিমান পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

www.bbcsangbad24.com