মার্চ,৩১,২০২১

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি:

মুন্সিগঞ্জে সিরাজদিখানে হেফাজত, পুলিশ, আ”লীগ সংঘর্ষে ওসিসহ শতাধিক আহতের ঘটনায় ৬১৫ জনকে আসামী করে মামলা করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার(৩০ মার্চ) রাতে সিরাজদিখান থানার উপ পরিদর্শক রিমন হোসাইন বাদী হয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হেফাজতের নায়েবে আমির মধুপুর পীর আব্দুল হামিদ এর দুই ছেলে ওবায়দুল্লাহ কাশেমী (৪০) এবং আবদুল্লাহ (৩৫) সহ ১৫ জনের নাম উল্লেখসহ ৫/৬ শত জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে এ মামলা দায়ের করেন।

সিরাজদিখান থানার ওসি তদন্ত কামরুজ্জামান আমার সংবাদকে জানান, ১৫ জনকে এজাহার নামীয় আসামী এবং ৫/৬শত জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে হেফাজতে ইসলাম ও পুলিশ,ছাত্রলীগ,যুবলীগের সঙ্গে সংঘর্ষে শতাধিক আহত হয়। গত রোববার বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের বড় শিকারপুর এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় ঘটনার স্থলে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

এই সংঘর্ষের ঘটনায় সিরাজদিখান থানার ওসি এসএম জালাল উদ্দিন, এসআই সেকেন্দার আলী, এএসআই রাজু আহমেদ, হেফাজতের ইসলামের নায়েবে আমির ও মধুপুর পীর আল্লামা আব্দুল হামিদ ও হাফেজ মাওলানা বশির আহম্মেদ, ছাত্রলীগের তুষার,নাজমুল ইসলামসহ ছাত্রলীগ,যুবলীগ ও মাদরাসার শিক্ষার্থীসহ শতাধিক আহত হন।

এই ঘটনায় সিরাজদীখান থানার ওসি এস এম জালাল উদ্দিনের মাথায় ৩১টি সিলিসহ হাসপাতালে চিকিৎসাধিন আছে।

www.bbcsangbad24.com