এপ্রিল ০৬, ২০২১,

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘন্টায় রেকর্ড মৃত্যু ও শনাক্ত হয়েছে। গত একদিনে ৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ৯ হাজার ৩৮৪ জন।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৭ হাজার ২১৩ জনের। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ লাখ ৫১ হাজার ৬৫২ জনে। একদিনে আক্রান্ত ও মৃত্যু দুটোইতে মহামারীর এক বছরে রেকর্ড হয়েছে।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ২ হাজার ৯৬৯ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত এক দিনে। তাতে এ পর্যন্ত সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ৫৮ হাজার ৩৮৩ জন হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩৭টি ল্যাবে ৩৪ হাজার ৩১১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নমুনা ও পরীক্ষার দিক থেকে এটি ছিল এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ।
পরীক্ষা বিবেচনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১.০২ শতাংশ। মোট শনাক্তের ১৩.৪৪ শতাংশ।

সবশেষ এক দিনে মৃত ৬৬ জনের মধ্যে ৩৯ পুুরুষ ও ২৭ নারী রয়েছেন। তাদের মধ্যে দুইজন বাদে সবাই হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। বয়স বিবেচনায় মৃতদের মধ্যে বিশোর্ধ্ব এক, ত্রিশোর্ধ্ব দুই, চল্লিশোর্ধ্ব পাঁচ, পঞ্চাশোর্ধ্ব ১৭, ষাটোর্ধ্ব ৪১।

বিভাগ অনুযায়ী, ঢাকায় ৫৪, চট্টগ্রামে চার, রাজশাহীতে তিন, বরিশালে দুই, খুলনায় দুই ও সিলেটে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

বাংলাদেশে গত বছর ৮ মার্চ করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ার এক বছর পর গত সপ্তাহে প্রথমবারের মত এক দিনে পাঁচ হাজারের বেশি নতুন রোগী শনাক্তের খবর আসে। এরমধ্য দিয়ে দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২৯ মার্চ ছয় লাখ ছাড়িয়ে যায়।

তিন দিনের মাথায় গত বৃহস্পতিবার দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়িয়ে যায়। মাঝে শনিবার দৈনিক শনক্তি রোগী ৬ হাজারের নিচে থাকলেও রোববার তা নতুন রেকর্ডে পৌঁছায়।

সেদিন শনাক্ত হয়েছিল ৭ হাজার ৮৭ জন। সোমবারও ৭ হাজার ৭৫ জনের মধ্যে করোনভাইরাস শনাক্ত হয়। এ নিয়ে টানা তিনদিন ৭ হাজারের বেশি মানুষের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ল।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর গত বছরের ১৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছিল সরকার। এ বছর ৩১ মার্চ তা নয় হাজার ছাড়িয়ে যায়। গতবছর ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

www.bbcsangbad24.com