এপ্রিল,১০,২০২১

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: 

মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিমে মেয়র আব্দুস সালামের বাড়িতে গ্যাস লিকেজের বিস্ফোরণের ঘটনায় আহত মেয়রের স্ত্রী কানন বেগম মারা গেছে। আজ শনিবার (১০ এপ্রিল) দুপুর ১ টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন মীরকাদিম পৌরসভার প্যানেল মেয়র আব্দুর রহিম বাদসা।

গত মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) রাত ৯টার দিকে
পৌরসভার রামগোপালপুর এলাকায় মেয়েরের বাসায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

ওই সময় কাউন্সিলর ও অন্যদের সঙ্গে নিয়ে নিজ বাড়িতে পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র নিয়ে মেয়র আব্দুস সালাম মিটিং করছিলেন। এ সময় বিকট শব্দে ওই বাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটে।

এতে পৌর মেয়রের স্ত্রী কানন বেগম, ২ প্যানেল মেয়র রহিম বাদশা (৫৫), আওলাদ (৪০), কাউন্সিলর দ্বীন ইসলাম, মো. সোহেল, যুবলীগ কর্মী তাইজুল (২০), মো. মোশারফ (৬২), মনির হোসেন (৫০), শ্যামল দাশ (৪৫), পান্না (৫০), কালু (৪০), কানন (৪০) ও মহিউদ্দিনসহ মোট ১৫জন আহত হন। ঘটনার পরই ১২ জনকে গুরুতর অবস্থায় শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে প্রেরণ করা হয়।

মেয়রের স্ত্রী কানন বেগমের শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে যায়। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সে মারা যায়।

ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি অপর ১২ জনের মধ্যে পৌরসভার কর্মকর্তা মনির হোসেনসহ (৫০) দুইজন এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বাকি ৯ জনকে চিকিৎসা শেষে বাড়িতে পাঠানো হয়েছে।

বিস্ফোরণের বিষয়টি নিয়ে রহস্য ও প্রতিপক্ষের পরিকল্পিত হামলা হতে পারে বলে অভিযোগ তুলে আহতদের স্বজনরা। তবে ঘটনার পর সিআইডির বোমা নিষ্ক্রিয় টিম, ফায়ার সার্ভিস ও জেলা পুলিশ ঘটনাস্থলের আলামত পরীক্ষার পর বিস্ফোরণটি বাড়ির গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন।

www.bbcsangbad24.com