এপ্রিল ২১, ২০২১,

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার কদিম খশিল্লা গ্রামে মসজিদ নির্মাণকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মিজানুর রহমান বাবুল (৪২) নিহত হয়েছে।

এঘটনায় লাবু ও জাহিদ নামে দুই ব্যক্তি আহত হয়েছে। আহতরা টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

রোববার সন্ধ্যায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাবুলের মৃত্যু হয়। মৃৃত্যুুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে শোকের ছায়া নেমে আসে।

নিহত মিজানুর রহমান বাবুল উপজেলার নাগবাড়ি ইউনিয়নের কদিম খশিল্লা গ্রামে আ.রশিদে ছেলে ও বেহালাবাড়ি কিন্ডার গার্ডেন স্কুলে শিক্ষক ছিলেন।

এ ব্যাপারে নিহতের চাচা জিয়া বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দয়েয়র করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মিজানুর রহমান বাবুলের দাদি উপজেলার উপজেলার নাগবাড়ি ইউনিয়নের কদিম খশিল্লা গ্রামে মসজিদ নির্মাণের জন্য জমি দান করেন।

ওই জমিতে মাটি ভরাট করেন, জমির পাশের বাড়ির মালিক কোরবান আলীদের সাথে নিয়ে মাপ জোক করে মসজিদ নির্মাণ  কাজ করে। মসজিদ ঘর নির্মাণ শেষ হলে কোরবান আলী মসজিদের ভিতর জায়গা পাবে বলে দাবি করে।

কথা কাটাকাটির এপর্যায়ে ফালু শেখের ছেলে কোরবান, নুরু, মোংলা, আলম, কোরবান আলীর ছেলে ফজলু ইট পাটকেল দিয়ে ডিল ছুড়তে থাকে। এক পর্যায়ে মিজানুর রহমান বাবুলের মাথায় সাবল দিয়ে আঘাত করে। লাবু ও জাহিদ এগিয়ে এলে তাদেরকেও পিটিয়ে আহত করে।আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

সেখান থেকে বাবুলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। মঙ্গলবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

কালিহাতী থানার এস আই ফজলুর রহমান জানান, থানায় একটি মামলা হয়েছে। তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

www.bbcsangbad24.com