এপ্রিল,২৪,২০২১

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি: 

আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলার চরকেওয়ার ইউনিয়নের ছোট মোল্লাকান্দি ও খাসকান্দি গ্রামে দফায় দফায় সংঘর্ষ শতাধিক ককটেল বিস্ফোরণ ও বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) বিকাল থেকে শুরু হয়ে গভীর রাত পর্যন্ত ছোট মোল্লাকান্দি ও খাসকান্দি গ্রামে থেমে থেমে এ সংঘর্ষ চলে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের জন‌্য পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌঁছালেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে হিমশিম খেতে হয় তাদের।

স্থানীয়রা জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে খাসকান্দি গ্রামের নজির হালদারের লোকজন প্রথমে সাবেক ইউপি সদস্য নাছির মেম্বারের লোকজনের বাড়ি ঘরে হামলা চালায়। একই সময়ে ছোট মোল্লাকান্দি গ্রামের সৈয়দ খাঁন গ্রুপের লোকজনও ছোট মোল্লাকান্দি গ্রামে থাকা নাছির মেম্বারের সমর্থকদের বাড়ি ঘরে ককটেল হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। এই ঘটনার চরম উত্তেজনা সৃস্টি হলে নাসির মেম্বার গ্রুপের লোকজনও পাল্টা হামলা চালায়। দফায় দফায় হামলায় মুহু মুহু ককটেল বিস্ফোলণের ঘটনা ঘটে।

চালানো হয় নিরীহ মানুষ বাড়ি ঘরে ব্যাপক ভাংচুর। এক বছর ধরে এই দুই গ্রুপের মধ্যে বহুবার হামলা এবং পাল্টা মামলার ঘটনা ঘটেছে। দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ইতোমধ্যে প্রায় ১৩ টি বাড়িঘর ভাংচুর এবং বিস্ফোরণ মামলা হয়েছে। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রায়ই দু”পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে লিপ্ত হন। বিগত দিনের সংঘর্ষের ঘটনায় যাদের নামে মামলা হয়েছে তাদেরকে এখনও আইনের আওতায় আনা হয়নি বলে দিনের পর দিন দু”পক্ষ বার বার সংঘর্ষে লিপ্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় গ্রামবাসীরা।

হামলার বিষয়ে নাছির মেম্বার গ্রুপের লোকজন বলছে, নজির হালদারের লোকজন তাদের লোকজনদের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করেছে। এঘটনায় তাদের পক্ষের কমপক্ষে ১০ টি বাড়িতে ব্যাপক ভাংচুর চালানো হয়েছে। অপরদিকে নজির হালদার পক্ষের লোকজন বলছে, নাছির মেম্বারের লোকজনও তাদের বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়েছে। এই ঘটনায় উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০জন আহত হয়েছে বলে দাবি তাদের, তবে কয়টি ঘর ভাঙচুর হয়েছে সঠিকভাবে জানা যায়নি।

পুলিশ জানায়,আধিপত্যা বিস্তারকে কেন্দ্র করে খাসকান্দির সামসুদ্দিন গ্রুপ ও ছোট মোল্লাকান্দির নজির হালদার গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। সেই বিরোধকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে দুই পক্ষ একাধিক বার সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রায়ই সংর্ঘষে লিপ্ত হয় তারা। তারই ধারাবাহীকতায় শুক্রবার ফের সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে দুটি গ্রুপের লোকজন। একে অপরের ওপর হামলা চালায়, চলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া।

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক বিবিসি সংবাদকে বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু”পক্ষের লোকজনই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। বেশ কিছুবাড়ি ঘরে ভাংচুর ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। সংঘর্ষের বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

www.bbcsangbad24.com