জুন ০৩, ২০২১,

নিজস্ব প্রতিবেদক

অবিলম্বে আবাসিক হল ও ক্যাম্পাস খুলে পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে রাজধানীর নীলক্ষেত অবরোধ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় তারা নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়ে তাদের দাবি-দাওয়া পেশ করেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবি, বন্ধের ১৪ মাস অতিক্রান্ত হলেও শিক্ষা কার্যক্রম নিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বা কলেজ প্রশাসন থেকে কোনো রোডম্যাপ ঘোষণা করা হয়নি। বরং কোনো পরিকল্পনা ছাড়া একের পর এক তারিখ ঘোষণা করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এক প্রকার দায়িত্ব এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, অনলাইন ক্লাস চালু রাখা হয়েছে যেখানে আর্থিক সংকট ও নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে অধিকাংশ শিক্ষার্থী অংশ নিতে পারেনি, যার ফলে অনেক শিক্ষার্থীই শিক্ষা কার্যক্রম থেকে ঝরে পড়েছে। অথচ যেখানে অফিস-আদালত খোলা রাখা হয়েছে সেখানে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখাটা অযৌক্তিক।

শিক্ষার্থীরা আরো বলেন, একাডেমিক কাউন্সিলে আবাসিক হল বন্ধ রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বর্ষের পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। অথচ এখানকার বেশিরভাগ শিক্ষার্থীই ঢাকার বাইরে থেকে এসে পড়াশোনা করেন এবং বিভিন্ন জায়গায় টিউশনি করে নিজের খরচ চালায় আবার অনেক সময় পরিবারকেও আর্থিক সহযোগিতা করে তাদের টিকে থাকতে হয়।

তারা আরও বলেন, করোনাকালে অনেকেই টিউশন হারিয়ে অনিশ্চিত জীবনযাপন করছেন। এমন অবস্থায় পরীক্ষার জন্য ঢাকায় তার পক্ষে মেসে ওঠা অসম্ভব হয়ে দাঁড়াবে। অন্যদিকে প্রস্তুতির পর্যাপ্ত সময় না দিয়ে, হল ক্যাম্পাস খুলে না দিয়ে, যথাযথ রোডম্যাপ তৈরি না করে, পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে শিক্ষার্থীরা আরেক নতুন সংকটে পড়বে। প্রস্তুতির সময় না দিলে ফলাফল বিপর্যয় হবে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, সাত কলেজের অসংখ্য শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসের হলে থেকে পড়াশোনা করে। করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি হলও বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে অনেকেই এখন বাড়িতে অবস্থান করছে। এখন যদি এসব শিক্ষার্থীদের সশরীরে পরীক্ষা নেওয়া হয় তবে ঢাকায় এসে মেস ভাড়া করে অথবা নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় থাকতে হবে। অনেক দরিদ্র শিক্ষার্থীর পক্ষেই এটি সম্ভব নয়। তাই সরাসরি পরীক্ষা নেয়া শুরু হলে অবশ্যই কলেজের হল খুলে দিতে হবে। না হলে শিক্ষার্থীরা প্রচণ্ড বিপাকে পড়বে।

www.bbcsangbad24.com