জুন ২৮, ২০২১,

নিজস্ব প্রতিবেদক

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেছেন, লকডাউন কিংবা শাটডাউন নয়, করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে আগামী বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) থেকে সরকার স্ট্রিক্ট ভিউতে যাচ্ছে।

বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও বিজিবি মাঠে থাকবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সোমবার (২৮ ) দুপুরে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর সচিবালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এসব কথা জানান।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, স্ট্রিক্ট ভিউতে যাচ্ছি আমরা। ১ তারিখ ভোর ছয়টা থেকে সাত তারিখ থেকে রাত বারোটা পর্যন্ত খুব স্ট্রিক্ট ভিউতে যাচ্ছি আমরা। ফলে এখন আমাদের স্ট্রিক্ট… লকডাউন ঠিক নয়, নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে হবে। কিছু বাস্তব কারণে ৩০ তারিখ পর্যন্ত আমরা করতে পারছি না। সে কারণে ১ তারিখ থেকে।

তিনি বলেন, আর্মি, বিজিবি, ব্যাটালিয়ন পুলিশ তারা সবাই মাঠে থাকবে। যতটুকু সম্ভব যা দরকার সব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে তাদেরকে অথরিটি দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে যাতে মানুষকে ম্যাসিভভাবে ঘরের বাইরে বের হতে না পারে।

সচিব বলেন, ফোর্স করতে হলে, কাউকে ধরতে হলে, টহল দেবে। কেউ কথা না শোনলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া, এসব।

মঙ্গলবার প্রজ্ঞাপন জারি করে এসব জানিয়ে দেয়া হবে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। বলেন, ডিটেইল বলে দেয়া হবে আগামীকাল নোটিফিকেশনে।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, এবার মুভমেন্ট পাস থাকবে না। তবে কেউ ঘর থেকে বের হতে পারবে না।

তিনি বলেন, আজকে ক্যাবিনেট মিটিংয়ে এ বিষয়ে দুর্যোগ মন্ত্রণালয়কে ক্লিয়ারলি ইনস্ট্রাকশন দিয়ে দেয়া হয়েছে। সোশ্যাল সেফটি নেটের আওতায় যথাসম্ভব, গত বছর যেভাবে করা হয়েছিল সেরকম একটি প্রোগ্রাম চক আউট করে, বিশেষ করে শহর এলাকায় বেশি প্রবলেম হয়, সেগুলোর জন্য যেন যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, আমাদের যেটা এক্সপেরিয়েন্স সেটা হল গত ১৫/২০ দিনে, আমরা যেটা সুপারভাইজ করছি, যেসব এলাকায় আমরা, যেমন চাঁপাইনবাবগঞ্জ স্ট্রিক্টলি লক করে দেয়াতে কমে গেছে, সাতক্ষীরায় কমে গেছে, যেখানে যেখানে কঠোর বিধিনিষেধ দেয়া হয়েছে, সেখানে কমেছে। সাতদিন পর সরকার যদি মনে করে আরও সাতদিন যেতে হবে, সেটা বিবেচনায় আছে।

প্রসঙ্গত, করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন দিনের লকডাউনের প্রথম দিন আজ। চলবে আগামী ১ জুলাই পর্যন্ত। এ সময়ের মধ্যে সব ধরনের গণপরিবহণ বন্ধ থাকবে। দোকানপাট ও শপিংমলও বন্ধ থাকবে।

www.bbcsangbad24.com