আগস্ট ০৪, ২০২১,

বাগেরহাট প্রতিনিধি

সুন্দরবন সংলগ্ন খাল থেকে বিষ (কিটনাশক) দিয়ে আহরিত আট মণ চিংড়ি সহ নৌকা জব্দ করেছে বন বিভাগ।

বুধবার (০৪ আগস্ট) সকালে সুন্দরবন পূর্ববন বিভাগের কাটাখালী খাল থেকে এই মাছ জব্দ করা হয়। পরবর্তীতে উর্দ্ধোতন কর্তৃপক্ষের নির্দেষে চিংড়ি মাছ গুলোকে কেরোসিন দিয়ে মাটি চাপা দিয়েছে বনরক্ষিরা।

সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক এনামুল হক বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে বনরক্ষিরা ওই এলাকায় অভিযান চালায়। বনরক্ষীদের উপস্থিতি টের পেয়ে জেলেরা পালিয়ে যায়।

তখন নৌকায় রাখা ড্রামের মধ্যে হরিণা, চামিসহ কয়েক প্রজাতির আট মন চিংড়ি পাওয়া যায়। এসব চিংড়ি সুন্দরবনের বিভিন্ন খাল ও নদীর পানিতে কিটনাশক দিয়ে ধরা হয়েছিল। এগুলো খাওয়া মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ঝুকিপূর্ণ তাই কেরোসিন দিয়ে মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে।

পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থার জন্য নৌকাটি জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিয়মিত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
তিনি আরও বলেন, প্রজনন মৌসুম হওয়ায় জুন, জুলাই ও আগস্ট এই তিন মাস সুন্দরবনের অভ্যন্তরে মাছ আহরণ সম্পূর্ণ  নিষিদ্ধ। কিন্তু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী এই সময়ে অধিক মুনাফা লাভের আশায় মাছ আহরণ করে। অল্প সময়ে বেশি মাছ ধরার জন্য কিটনাশকও ব্যবহার করে তারা। তবে এসব অসাধু জেলে ও ব্যবসায়ীদের রুখতে বন বিভাগ সবসময় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।
www.bbcsangbad24.com