আগস্ট,২৩,২০২১

ফারহানা আক্তার, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ 

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি-গোবিন্দগঞ্জ সড়কে প্রায় ১০ কিলোমিটার রাস্তা পাকাকরন কাজের মেয়াদ শেষ হলেও অগ্রগতি নেই সংস্কার কাজের। রাস্তা খুঁড়ে লাপাত্তা নিয়োগকৃত ঠিকারদারী প্রতিষ্ঠান। চুক্তিভিত্তিক মেয়াদ অনুসারে চলতি বছরের ৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শতভাগ রাস্তার কাজ সম্পন্ন করার কথা থাকলেও এখন পর্যন্ত কাজ হয়েছে ৫০ ভাগ।

দীর্ঘ প্রায় দুই বছর যাবৎ রাস্তা খুঁড়ে রাখায় বিভিন্ন জায়গায় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। ভোগান্তি বেড়েছে জনসাধারনের। রাস্তার বেহাল দশার কারনে যাত্রী পরিবহনে ভাড়া বেড়েছে দ্বীগুন। এদিকে কাজ শুরুর দিকে নিন্মমানের সামগ্রীর ব্যবহার ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে জয়পুরহাট স্থানীয় সরকার অধিদপ্তরের প্রকৌশলীকে দাপ্তরিক পত্র পাঠান উপজেলা চেয়ারম্যান মুনিরুল শহীদ মুন্না।

উপজেলা প্রকৌশলী অফিস সূত্রে জানাযায়, গ্রামীণ সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ পুনবার্সন প্রকল্পের আওতায় পাঁচবিবি থেকে শালাইপুর ১০ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের দরপত্র আহ্বান করে জয়পুরহাট স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর। দরপত্রের শর্ত অনুসারে প্রায় ৯ কোটি টাকা চুক্তিমূল্যে কাযার্দেশ পায় বগুড়ার মাসুমা কনস্ট্রাকশন নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

মাসুমা কনস্ট্রাকশনের প্রতিনিধি সেলিম বলেন, করোনাকালীন সময়ে শ্রমিক ও মালামাল সংকটের কারনে বিলম্ব হয়েছে। তবে আরো এক বছর মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আবেদন করেছি।

উপজেলা চেয়ারম্যান মুনিরুল শহীদ মুন্না বলেন, এই রাস্তার কাজ সঠিক ভাবে করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট দাপ্তরিক পত্রও পাঠিয়েছি।

উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল কাইয়ুম বলেন, রাস্তার কাজ দ্রুত সময়ের মধ্যে করার জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে তাগাদা দেওয়া হচ্ছে।

www.bbcsangbad24.com