সেপ্টেম্বর,০১,২০২১

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি: 

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় স্বপন মিয়া (৩৫) নামের এক যুবককে বাড়ি হতে ডেকে নিয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে হত্যা করে আরিফ হোসেন।

পরকীয়া প্রেমের কারণে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে , হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত চাপাতিটি উদ্ধার করেছে গজারিয়া থানা পুলিশ।

হত্যাকারী মো. আরিফ হোসেন(২৫) হত্যাকান্ড ঘটাইয়া থানায় আত্মসমর্পন করে অকপটে পুলিশের কাছে হত্যার বিবরণ দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চাপাতিটি উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে গজারিয়া উপজেলার ভবেরচর ইউনিয়নের নয়াকান্দী ব্রীজের পাশে হতে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত চাপাতিটি উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, আরিফ হোসেনের স্ত্রী রােকেয়া বেগমের (১৮) সাথে স্বপন মিয়া পরকীয়ায় লিপ্ত থাকার সন্দেহে গেল মঙ্গলবার বিকালে নয়াকান্দী ব্রিজের ঢালে প্রকাশ্য দিবালােকে স্বপন মিয়া কে চাপাতি দিয়া কুপাইয়া নিশংসভাবে হত্যা করে নিজেই থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে।

এ ঘটনায় নিহত স্বপন মিয়ার বড় ভাই মাে. রহিম মিয়া গজারিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার বেলা ৪ টার দিকে উপজেলার ভবেরচর বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন মো. স্বপন মিয়া। পথিমধ্যে ভবেরচর ইউনিয়নের নয়াকান্দী গ্রাম সংলগ্ন ব্রিজের উত্তর পাশে পেছন দিক থেকে এসে ধারালো অস্ত্র
চাপাতি দিয়ে স্বপন মিয়ার মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করে। মো. স্বপন মিয়ার মৃত্যু নিশ্চিত করে দৌড়ে গিয়ে ঘাতক আরিফ হোসেন থানায় আত্মসমর্পণ করেন।

পরে স্থানীয় লোকজন থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ স্বপনের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

গজারিয়া থানার তদন্ত ওসি মো তানভীর হোসেন জানান, ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত একজনকে আটক করা হয়েছে।

www.bbcsangbad24.com