সেপ্টেম্বর ০৪, ২০২১,

দোহার (ঢাকা) প্রতিনিধি

ঢাকার দোহার উপজেলায় পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে পানিবন্দি হয়ে দুর্ভোগে পড়েছে হাজারো মানুষ।

পানিবন্দির কারণে জনজীবনে নেমে এসেছে নানা দুর্ভোগ। দিন দিন বাড়ছে পানি।

গত ১ সপ্তাহ ধরে দোহারের নদী তীরবর্তী এলাকাগুলোতে পদ্মার পানি বিপদসীমারেখায় প্রবাহিত হচ্ছে।

দোহার উপজেলার মধুরচর, লটাখোলা বেদে পল্লী, চর মাহমুদপুর, বিলাসপুরসহ বিভিন্ন নদী তীরবর্তী এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, পদ্মার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় প্লাবিত হয়েছে রাস্তাঘাট, ফসলী জমি ও মাছের ঘের। চলাচলের একমাত্র ভরসা হয়েছে নৌকা। রাস্তাঘাট প্লাবিত হওয়ায় বাজার, হাসপাতাল ও মসজিদে যাতায়াত করা কঠিন হয়ে দাড়িয়েছে।

এছাড়াও উপজেলার সুতারপাড়া ইউনিয়নের মধুরচর এলাকায় মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে নির্মিত প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার জমিসহ ঘর হস্তান্তরের আগেই প্লাবিত হয়েছে। দোহারের ‘মিনি কক্সবাজার’ খ্যাত মনৈটঘাট এলাকাটি পদ্মার পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় এই পর্যটন এলাকার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা মানবতের জীবনযাপন করছেন।

দোহার উপজলো নির্বাহী র্কমর্কতা এ.এফ.এম ফিরোজ মাহমুদ নাঈম বলেন, উপজেলার আটটি ইউনিয়নে পদ্মারতীরবর্তী এলাকার পানিবন্দি যারা রয়েছে, থাকার সমস্যা হলে তাদের জন্য প্রতিটি ইউনিয়নে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া খাদ্য সংকট যাতে দেখা না দেয়, তার জন্য খাদ্যের ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

www.bbcsangbad24.com