নভেম্বর ১১, ২০২১,

মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার সাহেবরামপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৩নং ওর্য়াডের আন্ডারচর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের শতাধিক বোমা বিস্ফোরণ, গোলাগুলি ও কেন্দ্র দখলের ঘটনা ঘটে। পরে সাময়িকভাবে ভোটগ্রহণ স্থগিত হয়ে যায়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সকাল ১০টার দিকে সাহেবরামপুর ইউনিয়নের আন্ডারচর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে স্বতন্ত্র প্রার্থী মুরাদ সর্দার আসলে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুল আহসান সেলিমে আসলে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের লোকজন অন্তত শতাধিক বোমা বিস্ফোরণ করে ভোটরদের ছত্র ভঙ্গ করে দেয়। পরে পুলিশ ও স্টাইকিং র্ফোস, র‌্যাব ও বিজিবি এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এ সময় সকাল ১০টা থেকে ভোটগ্রহণ সাময়িক স্থগিত করা হয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্যে অন্তত ২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করেন। এ ঘটনায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

এদিকে, আলীনগর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড ফাসিয়াতলা মার্চেন্ড স্কুল ভোট কেন্দ্রে নির্বাচন পরিদর্শন করতে এলে সকাল ১০ ঘটিকায় সতন্ত্র প্রার্থী আনারস মার্কার মিলন সরদারের ভাতিজা সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম ইউনুস সরদারের ছেলে লালন সরদারের উপর অতর্কিত ভাবে হামলা করে কেন্দ্র থেকে বের করে দেন নৌকার সমর্থকরা।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় সাময়িক ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। পরে বিবেচনা করে ভোট নেয়া হবে। সাহেবরাপুর ছাড়াও আরও ১২টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ চলছে।
www.bbcsangbad24.com