দেশ ও মানুষের কথা বলে

ধর্মশিক্ষা বাদ দেওয়া হয়নি: শিক্ষামন্ত্রী

আগস্ট ২৭, ২০২২,

নিজস্ব প্রতিবেদক:

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ‘দেশে ধর্ম শিক্ষাকে সংকুচিত করা হয়েছে’ চরমোনাই পীরের এই বক্তব্য একেবারেই সঠিক নয়। নতুন শিক্ষাক্রমে ধর্মশিক্ষা বাদ দেওয়ার যে তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো হচ্ছে তা সঠিক নয়।

শিক্ষামন্ত্রী শনিবার (২৭ আগস্ট) জাতীয় প্রেস ক্লাবের মাওলানা আকরাম খা মিলনায়তনে ‘ওরিয়ন ট্রেক উইথ নিশাত’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলন চরমোনাই পীরের বক্তব্য প্রসঙ্গে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ধর্ম শিক্ষাসহ দেশের নৈতিকতা শিক্ষাকে আরও সম্প্রসারিত করা হয়েছে। নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে যতগুলো অপপ্রচার ছিল, সেগুলো ইতোমধ্যে আমরা জনগণের সামনে তুলে ধরেছি।

ধর্ম শিক্ষা বাদ দেওয়ার প্রশ্নই আসে না উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘মূলত একটি বিশেষ মহল অন্য কোনো ইস্যু খুঁজে না পেয়ে সরকারবিরোধী অপপ্রচারের অংশ হিসেবে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে এসব মন্তব্য করছে। সরকার আগে থেকেই ধর্ম শিক্ষাসহ নৈতিক শিক্ষার কার্যক্রম অনেক বাড়িয়েছে। সামনে আরও বাড়ানো হবে। দক্ষতা ও জ্ঞানকে যেভাবে প্রসারিত করা হচ্ছে, সেখানে কোনো বিশেষ শিক্ষাকে সংকুচিত করার তথ্য একেবারেই সঠিক নয়।,

শুক্রবার (২৬ আগস্ট) এক অনুষ্ঠানে ইসলামী আন্দোলনের আমির ও চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেন, ‘সিলেবাসে এম এ ক্লাস পর্যন্ত দ্বীনি শিক্ষা রাখা হয়নি। বরং ধোঁকাবাজি শিক্ষা ব্যবস্থা ঠিকই রাখা হয়েছে। ছাত্ররা মুরুব্বিদের কথায় চলছে-এটা ছাত্র আন্দোলন প্রমাণ করেছে।’

তিনি বলেন, ‘অন্যদিকে যদি দেখি, তাহলে দেখবেন কেলেঙ্কারি অবস্থা। বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন সম্পর্কে পর্যালোচনা করে দেখবেন, চাঁদাবাজি, জুলুমবাজি, অস্ত্রবাজি ও সন্ত্রাস। কিন্তু ৩১ বছরেও আমাদের ছাত্রদের বিরুদ্ধে এ রকমের কোনো ইতিহাস নেই।’

www.bbcsangbad24.com

Leave A Reply

Your email address will not be published.