দেশ ও মানুষের কথা বলে

কচুয়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দৈহিক সম্পর্কের অভিযোগ

সেপ্টেম্বর,০৬,২০২২

কচুয়া প্রতিনিধি চাঁদপুর

চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া গ্রামের মৃত নূরু মিয়ার মেয়ে আমেনা আক্তার (২০) কে দরিদ্রতার সুযোগ নিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দৈহিক সম্পর্কের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আমেনা আক্তারের তিন বছর পূর্বে একটি বিয়ে হয়। বিয়ের দু’মাস পরই ডিভোর্স হয়ে যায়। নুরু মিয়া মারা যাওয়ার পর তার স্ত্রী তাছলিমা বেগম, ছেলে মহিউদ্দীন ও মেয়ে আমেনা কে নিয়ে অতি দুঃখ কষ্টে জরাজীর্ণ বসতঘরে জীবনযাপন করছে। আমেনার মা তাছলিমা বেগম রহিমানগর বাজারে একটি হোটেলে মসলা বাটার কাজ করে। ছেলে মহিনউদ্দিন একই বাজারে একটি ডেকোরেটর দোকানে কাজ করে এবং মেয়ে আমেনা একটি হাসপাতালের ল্যাব সহকারি হিসেবে কাজ করে আসছে। এ অসহায়ত্বের ও দরিদ্রতার সুযোগে প্রায় দু’বছর পূর্বে থেকে একই গ্রামের করিম মেম্বার বাড়ির মৃত বিল্লাল হোসেনের ছেলে হৃদয় (২২) আমেনা কর্মস্থলে যাওয়া আসার সুবাধে তাদের মধ্যে প্রেম ভালবাসার সম্পর্ক গড়ে উঠে এবং বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দৈহিক সম্পর্কেও একাধিকবার মিলিত হয়। আমেনা হৃদয়কে বিয়ে করার জন্য বললে, সে বিভিন্ন তালবাহানা করে আসছে। সর্বশেষ গত ৪ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৯টার দিকে আমেনা নিজ কর্মস্থল থেকে বাড়িতে যাওয়ার সময় হৃদয় পিছু নেয়। আমেনা বসত ঘরে প্রবেশ করা মাত্র হৃদয় তার মুখ চেপে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা করে। এ সময় আমেনার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে এবং আমেনা ৯৯৯ ফোন দিলে কচুয়া থানার পুলিশও ঘটনাস্থলে আসলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

আমেনার ভাই মহিনউদ্দিন জানান, সর্বশেষ ঘটনার সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না। হৃদয় লোকজন নিয়ে এসে আমার মা ও বোনকে মারধরসহ ঘরদরজা ভাংচুর করেছে। এর আগেও আমি হৃদয়কে বলেছি আমরা গরিব মানুষ, আমার বোনের পিছু ছাড়ার জন্য। এতেও সে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে একাধিক মারধর করেছে।
হৃদয়ের বক্তব্য নেয়ার জন্য সরজমিনে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। তবে তার ব্যবহৃত

মোবাইল ফোনে কথা হলে জানান, আমেনার সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই বলে অস্বীকার করে । স্থানীয়রা দরিদ্র অসহায় আমেনার সাথে হৃদয়ের বিয়ের দাবী জানিয়েছে।
এ ব্যাপারে আমেনা কচুয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করলে এসআই মামুন সরকার সরজমিন এসে ঘটনাটি তদন্ত করেন। কচুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমেনা ও তার পরিবার ন্যায় বিচার পাবার দাবী করেছে।

www.bbcsangbad24.com

Leave A Reply

Your email address will not be published.